পুনে-০
চেন্নাই-১
পুনের ঘরের মাঠে চেন্নাই এর এই জয় তাদের নিয়ে গেল সেমিফাইনালে। ০-১ এ জিতে চেন্নাই সেমিফাইনালের দ্বিতীয় স্থানে। সেমিফাইনাল যে চার দলের মধ্যে হবে তারা হল কলকাতা, চেন্নাই, গোয়া, দিল্লি। একটা সময় চেন্নাই এর খেলা এবং পয়েন্টের দিকে তাকিয়ে মনে হয়েছিল মাতরাজ্জির ছেলেরা এবার হয়ত সেমিফাইনালে যাওয়ার সুযোগ পাবে না। কিন্তু ফুটবলারদের তাগিদ, দারুন খেলায় কামব্যাক করে তারা। আজকের এই ম্যাচের পর তালিকার ৭ নম্বরে খেলা শেষ করতে হল পুনেকে।
মুতু প্রত্যেক ম্যাচে শেষে গোল পান। এই কথাটা সবাই বিশ্বাস করতে শুরু করেছিল অনেকেই। সেইরকম ম্যাচের শেষ পর্যন্ত পুনের সমর্থকেরা আশায় ছিলেন। কিন্তু আজ দারুন পারফর্মেন্সের পরও গোল পেলেন না আদ্রিয়ান মুতু। তবে ভারতীয় ফুটবলে তার ন্নাম অনেকদিন মনে রাখবেন দর্শকেরা। এই সময় টা মুতুর হয়ত সেরা সময় নয়। সেই কারনেই তার ঝলক সব সময় দেখা যায়নি। তবে যতবার মাঠে নেমেছেন তার উপস্থিতি বারবার সবার নজর কেড়েছে। নিকি শোরেও  একজন দারুন ফুটবলার। আজ হয়ত ডেভিড প্লাটের ছেলেরা সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেনি।
ম্যাচের প্রথম থেকেই একটু রক্ষণাত্মক খেলেছে চেন্নাই। আজ চেন্নাই এর প্ল্যান ছিল কোনমতেই প্রতিপক্ষকে গোল করতে দেওয়া যাবেনা। মেন্ডোজা বারবার এগিয়েছেন গোলের জন্য। ম্যাচের শেষের দিকে যেভাবে গতি বাড়িয়ে গোলের জন্য গেলেন টা অসাধারণ বললেও কম বলা হবে। আজ খাবরা,  পোতেনজা, রক্ষণে দারুন ভূমিকা পালন করেছেন। থই সিং কে বারবার আক্রমণে দেখা গেছে। নিশ্চয় এটা চেন্নাই এর জন্য ভাল দিক। তবে এই ম্যাচে একা দক্ষতায় যেভাবে জেজে গোল করেন টা অসাধারণ। বল প্রথম শটে ফিরে আসার পর খেয়াল রেখে যে ভাবে গোল করলেন তা ভারতীয় ফুটবলারদের জন্য ভাল খবর। এই আই এস এল এ ভারতীয় ফুটবলাররা জ্বলে উঠেছে বারবার। এই গোলের পর জেজে ৫ নম্বর গোল পেলেন।
এই ম্যাচের পর ১৪ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট নিয়ে চেন্নাই কলকাতার ঠিক পরেই। আজ হলুদ কার্ড দেখেন কয়েকজন ইগুয়েন, রাভানান, এলানো, ওয়াডু। কিন্তু চেন্নাই এর জন্য খারাপ খবর হলুদ কার্ডের জন্য পরের ম্যাচ খেলতে পারবে না এলানো এবং ওয়াডু। সেমিফাইনালে কোন দল কোন দলের সঙ্গে খেলবে তারজন্য অপেক্ষা আর একটা দিন।